আহত অবস্থায় একাই রিকশায় উঠল রিফাত, স্যান্ডেল খুঁজতে ব্যস্ত মিন্নি!

গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাত শরীফকে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। আহত অবস্থায় একাই রিকশায় উঠে রিফাত। অথচ এসময় নিজের স্যান্ডেল আর ব্যাগ খুঁজতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি। যা অস্বাভাবিক বলে জানিয়েছেন পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহিদুল হক।

সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সরাসরি টক-শো অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে সঞ্চালকের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এ কে এম শহিদুল হক বলেন, সাংবাদিক সম্মেলন করে মিনির শ্বশুর অভিযোগ করলো। এছাড়া এ বিষয়ে মানববন্ধনও করা হয়েছে। এরপর সিসিটিভির দ্বিতীয় যে ভিডিওটি প্রকাশ পেয়েছে, ওই ভিডিওতে মিন্নির কিছু আচরণ অস্বাভাবিক মনে হয়েছে।

তিনি বলেন, মিন্নি যখন কলেজ থেকে স্বামীকে নিয়ে বের হল মোটরসাইকেলে উঠবে বলে, কিন্তু মোটরসাইকেলে না উঠে মিন্নি চলে এলো কলেজের ভেতরে। তখন আবার হামলাকারীরা তাকে (রিফাত) ধরে নিয়ে যখন যাচ্ছিল, মিন্নির মধ্যে কোন রকম কিছুই দেখা গেল না। সে স্বাভাবিক ছিল।

তার স্বামীকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে অথচ যে রিঅ্যাকশন হওয়ার কথা ছিল সেরকম কোন রিঅ্যাকশন দেখা যায়নি, বলেন এ কে এম শহিদুল হক।

পুলিশের সাবেক এ মহাপরিদর্শক বলেন, স্বাভাবিকভাবেই সে গেল। তাকে মারছে (রিফাত) তখন মিন্নি কিছু বলেনি। যখন সন্ত্রাসীরা রামদা নিয়ে আসছে তখন মরিয়া হয়ে তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করছে। এরপর যখন আহত অবস্থায় রিফাত একা একা রিকশায় উঠল মিনি তখন তার স্যান্ডেল ও ব্যাগ খুঁজতেছে। তার এ আচরণগুলি স্বাভাবিক না।

কিন্তু তার বাবাতো বলছে তাকে যা বলতে বলা হয়েছে তা-ই সে আদালতে বলেছে-সঞ্চালকের এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহিদুল হক বলেন, এরকম সব আসামীরাই বলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *