সিগারেট বাকি না দেয়ার দোকানদারের ঝলসে দিল যুবক

একুশের বার্তা ডেস্ক- বাকিতে সিগারেট না দেয়ায় গরম পানি দিয়ে মুদি দোকানদারের শরীর ঝলসে দিয়ে মাদকাসক্ত ক্রেতা।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটেছে মহানগরীর গাছা থানার শরীফপুর কোনাপাড়া এলাকায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় দোকানদার কামাল হোসেনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত কামাল হোসেন (৩২) ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার কৈয়ারচালা গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে। তিনি গাছার শরীফপুরের কোনাপাড়া এলাকার জয়নাল আহাম্মদের বাড়িতে ভাড়া থেকে মুদি দোকান চালাতেন।

দোকানদারের স্ত্রী আকলিমা বেগম জানান, শরীয়পুর কোনাপাড়া এলাকার মিজানুর রহমান ওরফে মির্জার ছেলে মনির হোসেন (৩৮) প্রায়ই দোকান থেকে সিগারেট বাকি নিত। পাওনা ৩০০ টাকা চাইলে অকথ্য গালাগাল, মারধর ও নানা হুমকি দিত। মনির মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আবার বাকিতে সিগারেট চায়। না দেয়ায় দোকানের ভিতর ঢুকে মারধর করে এবং এক পর্যায়ে চায়ের কেটলিতে থাকা ফুটন্ত গরম পানি মাথায় ঢেলে দেয়। যাওয়ার সময় দোকানের মালপত্র, টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। কামাল হোসেনের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছোটে এসে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে পাঠিয়ে দেয়। বর্তমানে তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার শরীরের অধিকাংশ চামড়া পুড়ে ঝলসে গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, অভিযুক্ত মনির মাদকাসক্ত। এলাকায় সে ইয়াবা ব্যবসা করে। তার বাবা মির্জা এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ায় সে বেপরোয়া।

গাছা থানার ওমি মো. ইসমাইল হোসেন জানান, এ ঘটনায় মুদি ব্যবসায়ী কামাল হোসেনের স্ত্রী আকলিমা বেগম বাদি হয়ে বুধবার লিখিত অভিযোগ করেছেন। তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *