‘নির্বাচনী আচরণ নিশ্চিতে নিরপেক্ষ থাকতে হবে’

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, নির্বাচনে সবাইকে নিরপেক্ষ থাকতে হবে। ২৪ ঘণ্টা আপনাদের সজাগ থাকতে হবে। এমনকি ঈদের মধ্যেও সচেতন থাকতে হবে। এ সময়ও যদি প্রার্থীদের কোনো অভিযোগ আসে তাহলে আমলে নিতে হবে। নির্বাচনী আচরণ প্রতিপালন নিশ্চিত করতে সর্বোচ্চ আইন প্রয়োগে অটল থাকতে হবে।
বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সিইসি বলেন, গত নির্বাচনে এক মাদরাসার প্রিন্সিপালও ব্যালট পেপারে সিল মেরে তার পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করার চেষ্টা করেছেন। প্রিজাইডিং কর্মকর্তারাই যদি এমন করেন, কীভাবে কী হবে?

রিটার্নিং কর্মকর্তাদের উদ্দেশে সিইসি বলেন, অন্যায় করলে সে যেই হোক না কেনো, বিচারের সম্মুখীন হতে হবে।

নূরুল হুদা বলেন, মাঝে মাঝে ভোটকেন্দ্রে এজেন্টরা নিজে থেকেই যায় না। না গিয়েই অভিযোগ করেন, তাদের ঢুকতে দেয়া হয়নি। তবু নিরপেক্ষ থেকেই দায়িত্ব পালন করতে হবে। প্রার্থীর এজেন্টদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

সিইসি আরো বলেন, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএমে) ভোট নির্বাচন কমিশনের বড় স্বপ্ন। ইভিএম ব্যবহারে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব বলে আশা করি। তবে এজন্য ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের আরো দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

তফসিল অনুযায়ী, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পঞ্চম অর্থাৎ শেষ ধাপে মনোনয়নপত্র দাখিলেরর শেষ সময় ২১ মে, যাচাই-বাছাই ২৩ মে, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৩০ মে। ভোটগ্রহণ করা হবে ১৮ জুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *