ধর্ষণকারীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিল জনতা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি- টাঙ্গাইলের মধুপুরে ৭ বছরের এক শিশু ধর্ষণকারী শহীদুল ইসলামকে (২০) আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা।

বুধবার দুপুরে ঘাটাইল উপজেলার পাকুটিয়া এলাকা থেকে তাকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ এসে শহীদুলকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

গ্রেফতারকৃত শহীদুল ইসলাম মধুপুর উপজেলার বেকারকোণা এলাকার শাহজাহান আলীর ছেলে। ওই শিশুটি স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্টেনের নার্সারির শিক্ষার্থী।

জানা যায়, গত শনিবার (৪ মে) দুপুরে ফণীর প্রভাবে বৃষ্টিপাতের সময় মধুপুর উপজেলার আলোকদিয়া ইউনিয়নের বেকারকোণা গ্রামের শহীদুল প্রতিবেশি ওই শিশুটিকে খাওয়ার লোভ দেখিয়ে পাশে নির্মাণাধীন একটি পাকা বাড়িতে নিয়ে যায়। ওখানে নিয়ে সে শিশুটির উপর পাশবিক নির্যাতন করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে রেখে যায়। শিশুটির কান্নার শব্দে প্রতিবেশী ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে যায়।

পরে গত ৫ মে মধুপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়। এরপর বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় শহীদুল। কিন্তু তার সন্ধান চেয়ে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেওয়া হয়। পরে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। এরই প্রেক্ষিতে ঘাটাইল পাকুটিয়া বাসস্ট্যান্ডে ঘোরাফেরা করার সময় জনতার হাতে আটক হয় শহীদুল।

এ বিষয়ে মধুপুর থানার এসআই আবু হান্নান বলেন, গত ৬ মে ওই শিশুটি ২২ ধারায় আদালতে জবানবন্দি দেয়। পরে বুধবার দুপুরে ঘাটাইলের পাকুটিয়া এলাকায় শহিদুল ইসলামকে স্থানীয়রা আটক করে পুুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *