সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে চান? পানি পান করুন…

আমাদের মানব দেহে পানির প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে পানি পানের কোন বিকল্প নেই। প্রায় তিন ভাগের দুই ভাগই পানি আমাদের শরীরে। অধিক কর্মদক্ষতা, ওজন কমানো, সুস্বাস্থ্য, ভালো ত্বক এবং ক্যান্সার প্রতিরোধে পানির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে মানবদেহে।

পানি সুস্থ জীবনের জন্য একটি আবশ্যক উপাদান। কিন্তু একজন মানুষের সুস্থ জীবনযাপনে প্রতিদিন পানি পান করা জরুরি। পানি পান করা যেমন জরুরি তেমনি জরুরি পরিমিত পরিমাণ পানি পান করা। আবার মাত্রাতিরিক্ত পানি পান করাও ক্ষতির কারণ হতে পারে।

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী প্রতিদিন ২৪০ মিলিলিটার মাপের ৮ গ্লাস পানি পান করা উচিত, যা কিনা গড়ে দুই লিটারের মতো হতে পারে। পানি পানের প্রবণতা বেড়েছে যুক্তরাজ্যে তরুণদের মধ্যে। শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পানের জন্য পানির বোতল সঙ্গে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন। তাছাড়া পানি আমাদের ত্বক উজ্জল ও সতেজ রাখতে সাহায্যে করে। আবার পরিমান মতো পানি পান করার ফলে আমাদের শরীরে কোন রোগ দেখা দেয় না।

১৯৪৫ সালে মার্কিন খাদ্য ও পুষ্টি বোর্ড অব ন্যাশনাল রিসার্চ কাউন্সিল পানি পানের সঠিক হিসেব দিতে গিয়ে বলেন, একজন নারীর প্রতি এক হাজার ক্যালরির জন্য শরীরে এক লিটার পানি প্রবেশ করা উচিত। একইভাবে দুই হাজার ক্যালরি পরিমাণ খাবার গ্রহণ করলে দুই লিটার পানি এবং ২৫০০ ক্যালরি খাবারের জন্য আড়াই লিটার পানি প্রবেশ করা দরকার। এক্ষেত্রে এর পুরোটা যে সরাসরি পানি পানের মাধ্যমে হতে হবে তেমন নয়, যেসব ফলমূল এবং সবজিতে প্রচুর পানি আছে সেগুলোও পানির বিকল্প উৎস হতে পারে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে- শসা, তরমুজ ও স্ট্রবেরির মোট ওজনের ৯০ শতাংশই পানি। মানুষের পানি চাহিদার ২০ শতাংশই পূরণ হয় স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার মাধ্যমে।

অপরদিকে, ১৯৭৪ সালে পুষ্টিবিদ মার্গারেট ম্যাকউইলিয়ামস এবং ফ্রেডরিক স্টেটের লেখা বই ‘নিউট্রেশন ফর গুড হেলথ’ বইয়ে তারা জানান একজন সুস্থ ব্যক্তির প্রতিদিন গড়ে ৬ থেকে ৮ গ্লাস পানি পান করা উচিত। এই দুই জন লেখকও দাবি করেছেন এই ৬ থেকে ৮ লিটার পানির মধ্যে সবজি, কোমল পানীয়ও অন্তর্ভুক্ত।

তাই নিয়ে গবেষকরা জানিয়েছেন, মানুষের দেহের প্রায় ৬০ শতাংশই পানি। পান করা এই পানি শরীর থেকে ঘাম, মূত্র এবং নিশ্বাসের সঙ্গে বের হয়ে আসে। আমাদের শরীরের পানির পরিমাণ ১ থেকে ২ শতাংশ কমে গেলে পানিশূন্যতা দেখা দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *