শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করায় যুবকের মৃত্যুদণ্ড

শেরপুরের নালিতাবাড়ি উপজেলার পানিহাতা এলাকার এক গারো শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে এক গারো যুবকের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে শেরপুর নারী ও শিশু নির্যতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান এ মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কান্তি মারাক পানিহাতা গ্রামের নিতিশ মান্দার ছলে। আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে আসামিকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানার টাকা ভিকটিমের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে দিতে বলেছেন বিচারক।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি গোলাম কিবরিয়া বলেন, ২০১৩ সালের ৩০ মার্চ সন্ধ্যা ৭টার দিকে নালিতাবাড়ি উপজেলার পানিহাতা গ্রামের তিন সন্তানের জনক কান্তি মারাকের বাড়িতে বেড়াতে আসে প্রতিবেশী গ্যাব্রিয়েল দিউয়ার আট বছরের শিশু। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকায় শিশুটিকে ধর্ষণ করে কান্তি মারাক। চিৎকার শুরু করেলে শিশুটিকে শ্বাসরোধে করে হত্যা করে বাড়ির পাশের জঙ্গলে মরদেহ ফেলে পালিয়ে যায় কান্তি মারাক। এ ঘটনায় শিশুটির নানা প্রজিন্দ্র মারাক বাদী হয়ে ৩১ মার্চ নালিতাবাড়ি থানায় মামলা করেন। ওই দিন ময়মনসিংহ থেকে ধর্ষক কান্তি মারাককে গ্রেফতার করে পুলিশ। ২০১৩ সালের ৪ জুন এ মামলার চার্জ গঠন শেষে বিচারের কাজ শুরু হয়। ১১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ এবং আসামি নিজেই দোষ স্বীকার করলে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *