ফের গুলশানের ডিএনসিসি মার্কেটে আগুন, ২৯১ দোকান পুড়ে ছাই

একুশের বার্তা ডেস্ক: দুই বছরের মাথায় ফের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গুলশান-১ এর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মার্কেটের ২৯১টি দোকান পুড়ে ছাই হলো।

২০১৭ইং সালের ৩রা জানুয়ারি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ভস্ম হয়েছিল গুলশান-১ নম্বর ডিএনসিসি মার্কেট। সেই সময়েও মার্কেটটির দোতলা মূল বিপণি বিতানের পাশের কাঁচা বাজারসহ সম্পূর্ণই পুড়ে গিয়েছিল। পরবর্তীতে ওই বাজারটি নতুন করে গড়ে তোলার দুই বছরের মাথায় ফের আগুন লাগার ঘটনায় ২৯১টি দোকান পুড়ে ছাই হলো।

আজ শনিবার ভোর পৌনে ৬টার দিকে এ আগুনের সূত্রপাত হলে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট ও তাদের সঙ্গে সেনা, বিমান ও নৌবাহিনীর সদস্যরা সকাল সারে ৮টা পর্যন্ত দীর্ঘ আড়াই ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। তবে এঘটনায় হতাহতের কোন খবর পাওয়া না গেলেও ক্ষতি হয়েছে বিপুল পরিমান।

ঘটনাটির সত্যতা স্বীকার করে ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (অপারেশনস) মেজর শাকিল নেওয়াজ জানান, ‘গুলশান-১ এ ডিএনসিসির কাঁচা বাজার ও সুপার মার্কেটের আগুন আমাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। গুলশান ১ নম্বর ডিএনসিসি মার্কেটের দোতলা ভবন ঘেঁষে লোহার কাঠামোর উপর টিন দিয়ে গড়ে ওঠা এই কাঁচা বাজারে মাংস ও মাছের দোকানের পাশাপাশি মুদি ও সুগন্ধির দোকান ছিল। আমদানি করা খাদ্য পণ্য ও সুগন্ধির অনেক দোকানের পাশাপাশি প্লাস্টিকের খেলনার দোকানও ছিল সেখানে। তার একটিকেও অক্ষত দেখা যায়নি। তবে কি কারনে আগুনের সুত্রপাত তার এখনো জানা যায়নি।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, রাতে দোকানগুলোতে কেউ না থাকলেও বাজারের কলাপসিবল গেটে তালা মেরে পাহারাদাররা বাইরে থাকেন।

কাঁচা বাজারের আগুন সামনে পাঁচতলা গুলশান শপিং সেন্টারেও ছড়িয়েছিল। সেখানে দোতলার বেশ কয়েকটি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই বিপণি বিতানে রয়েছে – হার্ডঅয়্যারের দোকান ও বিভিন্ন ধরনের খাবারের দোকান।

এদিকে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন শেষে আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ হানিফ সাংবাদিকদের বলেন, গতবার পুড়ে যাওয়ার পরে এই মার্কেটটিতে আন্তর্জাতিক মানের ভবন নির্মাণ করার কথা থাকলে কোন কারনে তা হয়ে ওঠেনি। তবে এবারের ঘটনার পরে আর বসে থাকবে না সরকার। এখানে আন্তর্জাতিক মানের মার্কেট নির্মাণ করা হবে।

প্রসঙ্গ, গত বৃহস্পতিবারে বনানীর ২৪ তলা এফ আর টাওয়ারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ২৫ জন নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয়ে আরো ৭১ জন। ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট দীর্ঘ পাঁচ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে সেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার দুই দিন না পেরোতেই গুলশান ডিএনসিসি মার্কেটে আগুনের ঘটনায় চরম উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে দেশ জুড়ে। এর আগে পুরান ঢাকার চুরিহাট্টায় স্মরন কালের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৮১ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *