নবীগঞ্জে বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ছবিবিহীন ব্যানারে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি: মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দিয়েছে নবীগঞ্জ পৌরসভা। গত বুধবার বিকেলে নবীগঞ্জ পৌরসভা প্রাঙ্গনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের ব্যানারে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর কোন ছবি ছিলো না। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দসহ সচেতন নাগরিক।

জানা যায়, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনার আয়োজন করে নবীগঞ্জ পৌরসভা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকার কথা ছিল হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনের সংসদ সদস্য গাজী মোহাম্মদ শাহ্ নেওয়াজ মিলাদ। কিন্তু সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের ব্যানারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি না থাকায় তিনি অংশ গ্রহণ করেননি।

অভিযোগ উঠেছে, নবীগঞ্জ পৌর মেয়র ছাবির আহমেদ চৌধুরী পৌর বিএনপির সভাপতি হওয়ায় তিনি প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুর ছবি ব্যানের প্রচার করতে অনাগ্রহী। যার কারণে ব্যানারে তিনি বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ছাপাননি। যদিও বিষয়টি হিতে বিপরীত হতে পারে মনে করে তাৎক্ষণিক ব্যানারের উপরে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর আলাদা ছবি পৃথকভাবে লাগানো হয়।

অথচ যে ব্যানারে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ছাপানো হয়নি সে ব্যানারে সংবর্ধনা নিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধারা। এছাড়াও অনুষ্ঠানে পৌরসভার মেয়র ছাবির আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অতিথি ছিলেন – উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন-হাসান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট গতি গোবিন্দ দাশ, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নূর উদ্দিন (বীর প্রতিক), মুক্তিযোদ্ধের অন্যতম সংগঠক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ, উপজেলা পজীপ কর্মকর্তা শাকিল আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা মৌলদ হোসেন কাজল, উপজেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবুল হোসেন আজাদ।

স্থানীয় সচেতন মহলের প্রশ্ন? মুক্তিযোদ্ধারা কি করে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী বিহীন ব্যানারে সংবর্ধনা নিয়েছেন। তাদের কি সংবর্ধনার এতোই প্রয়োজন ছিল?

এছাড়া সরকারী কর্মকর্তা হিসেবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন-হাসান ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট গতি গোবিন্দ দাশ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক হওয়ার পরও সংবর্ধনায় অংশ গ্রহণ করা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সচেতন মহল। এ ব্যাপারে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসন ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানিয়েছেন অনেকেই।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনের সংসদ সদস্য গাজী মোহাম্মদ শাহ্ নেওয়াজ মিলাদ বলেন – বঙ্গবন্ধুকে বাদ দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাকে চিন্তা করার কোন জায়গা নেই। কিন্তু পৌরসভার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ছবি ছাপানো হয়নি যা দুঃখজনক। এ ব্যাপারে তিনি আর কোন মন্তব্য করতে চাননি।

এ ব্যাপারে জানতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার তৌহিদ-বিন-হাসানের মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *