টেলিভিশনে খবর পড়বে রোবট এরিক! (ভিডিও)

প্রযুক্তি ডেস্কঃ

২৩ বছর বয়সী জাপানি এক নারীর অবয়ব দেয়া হয়েছে এরিকা নামের এই রোবটটিকে। চলতি বছর জাপানি টেলিভিশনে এরিকা খবর পড়তে যাচ্ছে। দেখতে একদম সত্যিকার মানুষের মতো এই রোবটটিকে আগামী এপ্রিল মাস থেকে টেলিভিশনে দেখা যাবে বলে জানা গেছে।

বর্তমানে সবচেয়ে উন্নত স্পিচ সিনথেসিস সিস্টেম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে এই রোবটে। রোবটটি এতটাই নিখুতভাবে তৈরি যে তাকে দেখলে মনে হবে মানুষের মতোই একটি সত্ত্বা আছে তার। রোবটটি তার মুখ নাড়াতে পারবে এবং ছোটখাট অভিব্যাক্তি প্রকাশ করতে পারবে কিন্তু হাত নাড়াতে পারবে না।

রোবটটির ডিজাইনার ড. ইশিগুরো জানান, তিনি নিজের তৈরি এই রোবট টেলিভিশনে নিয়ে আসার চেষ্টা করছেন ২০১৪ সাল থেকে। রোবটটি বানাতে অর্থ সহায়তা দিয়েছে জাপান সরকারের জেএসটি এক্সপ্লোরেটরি রিসার্চ ফর অ্যাডভান্সড টেকনোলজি আর কাজ করেছেন ওসাকা এবং কিওটো বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা।

রোবটটির প্রধান স্থপতি ডিলান গ্লাস গার্ডিয়ানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, পৃথিবীর সবচেয়ে উন্নত স্পিচ সিনথেসিস সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে এরিকাকে বানাতে গিয়ে। এরিকাকে কৌতুক বলতে ও শেখানো হয়েছে।

এরিকার ডিজাইনার হিরোশি ইশিগুরো গার্ডিয়ানে সাক্ষাৎকারে বলেন, এরিকা মানুষের সাথে কথা বলার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছে। আমার মনে হয় ও বহির্বিশ্ব সম্পর্কে জানার জন্য অনেক আগ্রহী।

তিনি আরও বলেন, জাপানে আমরা মানুষ এবং অন্যান্য সকল বস্তুর মধ্যে কোন পার্থক্য করি না। আমরা আসলেই মনে করি সবকিছুরই একটি আত্মা আছে। তো সেভাবেই আমরা মনে করি এরিকারও আত্মা আছে।

এরিকা বলে, আমি মনে করি আমি একজন সত্যিকার মানুষের মত। মানুষ যখন আমার সাথে কথা বলতে আসে তারা আমাকে সত্যিকারের মানুষের মতো করেই ট্রিট করে।

উল্লেখ্য অন্যান্য অনেক রোবটই মানুষের কর্মক্ষেত্রে কাজ করার চেষ্টা করেছিল। অতি সম্প্রতি ফ্যাবিও নামে এক রোবট ইংল্যান্ডের এক মুদির দোকান থেকে কর্মচ্যুত হয়েছে। এবার দেখা যাক এরিকার ভাগ্যে কি আছে

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *