স্বেচ্ছা আইসোলেশনে সাকিব আল হাসান

করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় স্থবির বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গন। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনও এর বাইরে নয়। বিদেশি অনেক ক্রিকেটারের মতো বাংলাদেশের দুজন ক্রিকেটারের হোম কোয়ারেন্টাইনের খবর এসেছে আগেই। এবার সাকিব আল হাসান জানালেন, নিজেকে স্বেচ্ছা আইসোলেটেড করে রেখেছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে সাকিব নিজেই এই খবর জানান। নিজের ভেরিফায়েড ফেইসবুক পেজে শনিবার বাংলাদেশি অলরাউন্ডার একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সাকিব তার বার্তায় করোনাভাইরাস সতর্কতায় সবার উদ্দেশ্যে বার্তা দেন।

একই সঙ্গে জানান এদিনই তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছেছেন এবং পৌঁছেই একটি হোটেলে নিজেকে আইসোলেটেট করে রেখেছেন।

সাকিব বলেন, ‘আমি মাত্রই ইউএসএ (যুক্তরাষ্ট্র) এসে পৌঁছালাম। যদিও প্লেনে সব সবময় ভয় কাজ করেছে একটু হলেও। তারপরও চেষ্টা করেছি কীভাবে নিজেকে হাইজিন রাখা যায়। পরিষ্কার রাখা যায় এবং জীবাণুমুক্ত রাখা যায়।’

‘এরপর যখন আমি ইউএসএতে ল্যান্ড করলাম, আমি সোজা একটি হোটেলে রুমে উঠেছি। ওদেরকেও আমি অবগত করেছি আমি এখানে থাকব কিছুদিন। এবং আমি যেহেতু ফ্লাই করে এসেছি, আমার একটু হলেও রিস্ক আছে। এ জন্য আমি নিজেকে আইসুলেটেড করে রেখেছি। যে কারণে নিজের বাচ্চার সঙ্গেও দেখা করিনি।’

এর আগে চোটের অস্ত্রোপচার করিয়ে অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরে দুই তরুণ ক্রিকেটার সাদমান ইসলাম অনিক ও মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছেন নিজেদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *