দুই বোনকে ধর্ষণের সময় দেখে ফেলল পাশের বাড়ির শিশু

একুশের বার্তা ডেস্ক- কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা সদর ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামে ২য় শ্রেণীতে পড়ুয়া দুই স্কুলছাত্রীকে একই স্থানে পর পর ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই সময় সেখানে থাকা ৩য় শিশুর হাতে দশ টাকা ধরিয়ে দিয়ে কাউকে বিষয়টি জানাতে নিষেধ করেন ধর্ষক।

ধর্ষণে অভিযুক্ত সুমন মিয়া (২৯) ডুমুরিয়া গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে। এই ঘটনায় শিশুর মা বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামি সুমন মিয়াকে গ্রেফতার করে শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শিশুটির মা জানান, তার মেয়ে (৭) ও তার ভাগ্নি (৮) স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে ২য় শ্রেণীর ছাত্রী। বুধবার বিকেলে তার মেয়ে, ভাগ্নি ও পাশের বাড়ির সমবয়সী এক শিশু অভিযুক্ত সুমনের বাড়ির পাশে খেলা করছিল। সুমন কৌশলে ওই তিন শিশুকে পাশের বাড়ির একটি ঘরে নিয়ে প্রথমে তার ভাগ্নিকে ধর্ষণ করে, তারপর তার মেয়েকে ধর্ষণ করে। এসময় তৃতীয় শিশুটিকে এই ঘটনা কাউকে না বলার জন্য দশ টাকা দিয়ে সুমন ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। বাড়ি ফিরে মেয়ে ও ভাগ্নি এ বিষয়ে তার মাকে জানালে শিশুটির মা পরদিন বৃহস্পতিবার মুরাদনগর থানায় এসে অভিযুক্ত সুমন মিয়ার বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ওসি একেএম মনজুর আলম বলেন, এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত সুমন মিয়াকে গ্রেফতার করে শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *