পাক সেনা-সন্ত্রাসীদের পুতুল ইমরান: কাইফ

জাতিসংঘে প্রদত্ত ভাষণে পরোক্ষভাবে ভারতকে গুঁড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পারমাণবিক যুদ্ধের হুশিয়ারি দেন তিনি। তা নিয়ে বিশ্বজুড়ে শুরু হয় হইচই। পাক প্রধানমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের সমালোচনায় সরব ভারতের সাবেক-বর্তমান ক্রিকেটাররা।

সৌরভ গাঙ্গুলি, বীরেন্দ্র শেবাগ, গৌতম গম্ভীর, মোহাম্মদ শামি, ইরফান পাঠান, হরভজন সিংয়ের পর এবার সমালোচনায় মাতলেন মোহম্মদ কাইফ। ইমরানের শাসনে পাকিস্তান ‘সন্ত্রাসীদের স্বর্গরাজ্যে’ পরিণত হয়েছে বলে তোপ দাগিয়েছেন তিনি।

একটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ইমরানের বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে পোস্ট করেন কাইফ। সঙ্গে লেখেন, হ্যাঁ, নিঃসন্দেহে, আপনার দেশের সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের ভালো সম্পর্ক রয়েছে। সন্ত্রাসবাদীদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। জাতিসংঘে আপনার বক্তব্য অত্যন্ত হতাশাজনক। মুহূর্তেই গ্রেট ক্রিকেটার থেকে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী ও সন্ত্রাসীদের পুতুলে পরিণত হয়েছেন।

গেল সপ্তাহে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় বক্তৃতা দেন ইমরান খান। পোডিয়ামে দাঁড়িয়ে তিনি বিশ্বনেতাদের উদ্দেশে বলেন, ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধ হলে শুধু দুই দেশেরই ক্ষতি হবে না। গোটা বিশ্বে এর প্রভাব পড়বে।

ভারতকে সতর্ক করে দিয়ে বিশ্বকাপজয়ী পাক অধিনায়ক বলেন, যদি দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে যুদ্ধ বাধে, তা হলে যেকোনও কিছু হতে পারে। একটা দেশ অন্য দেশের চেয়ে সাতগুণ ছোট। সেক্ষেত্রে আমরা স্বাধীনতার জন্য লড়ব, নয় সমর্পণ করব। প্রয়োজনে পরমাণু অস্ত্রেরও ব্যবহার হতে পারে।

গেল আগস্টে এক বিতর্কিত সিদ্ধান্তে জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে সংবিধান থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করে ভারতীয় সরকার। জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার প্রস্তাবও দেয় তারা। এতে লাখো কাশ্মীরি মুসলিম ভাই-বোন মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এরই প্রতিবাদে সরব পাকিস্তান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *