১৩ তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে শিক্ষকের ঘাড়ে তরুণী, অতঃপর…

আত্মহত্যা কোন সমাধান নয়। তারপরও মানুষ আত্মহত্যা করে থাকেন। ব্যক্তিত্বের সমস্যা, গুরুতর মানসিক রোগ, মাদকাসক্তি, এনজাইটি, ডিপ্রেশন অথবা প্ররোচনাসহ আরও অনেক কারণে মানুষ আত্মহত্যা করে থাকেন।

সম্প্রতি অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ায় আত্মহত্যার পথই বেছে নেন ৩০ বছর বয়সী এক নারী। বহুতল ভবনের ১৩ তলা থেকে ঝাঁপ দেন তিনি। তবে এ ঘটনায় শুধু তারই মৃত্যু হয়নি। মৃত্যু হয়েছে ৬০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধেরও।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের গুজরাট রাজ্যের সাবেক রাজধানী আহমেদাবাদে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, শুক্রবার সকালে হাঁটতে বেরিয়েছিলেন ৬০ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধ। এমনই দুর্ভাগ্য তার, ঠিক ওইসময় তিনি ওই বহুতলের নিচ দিয়ে যাচ্ছিলেন। সে সময়ই ঝাঁপ দিয়েছিলেন ওই নারী। সোজা গিয়ে পড়েন ওই বৃদ্ধের ঘাড়ে। ঘটনায় মৃত্যু হয় দু’জনেরই।

নিহত বৃদ্ধের নাম বালুভাই গামিত, সাবেক স্কুল শিক্ষক। তিনিও ওই এলাকায় থাকতেন।

ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, বেশ কয়েকদিন ধরেই অবসাদে ভুগছিলেন ওই নারী। যদিও কোনও সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়নি তার ঘর থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *