হাসপাতালের বারান্দায় নবজাতককে ফেলে পালিয়েছে মা

একুশের বার্তা ডেস্ক- সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দোতালার বারান্দায় কন্যা নবজাতককে ফেলে তার মা পালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

হাসপাতালের কর্মচারী খাদিজা বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শিশুর কান্না শুনে বারান্দায় গিয়ে সেখানে কন্যা শিশুটিকে একটি বিছানার নিচে কাঁথা মোড়ানো অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। পরে অভিভাবক না পেয়ে খাদিজা কর্তব্যরত সেবিকা ও চিকিৎসকদের অবহিত করেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একজন রোগী বলেন, সন্ধ্যার দিকে রোকরা পরিহিত এক নারী নিজেকে মা পরিচয় দিয়ে শিশুটি অসুস্থ বলে কোলে নিয়ে দোতালায় ঘোরাঘুরি করতে দেখেন।

ওই সময় সে ডাক্তার কখন আসবে সেটাও জানতে চান। পরে শিশুটিকে বারান্দা থেকে উদ্ধারের পর বুঝতে পারি তার মা পরিচয় দেওয়া নারী তাকে ফেলে পালিয়েছে।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক লোকজন ভিড় করেন। অনেকে শিশুটিকে দত্তক নেওয়ার আগ্রহ দেখান।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অনেক খোঁজাখুঁজির পরও শিশুটির কোনো অভিভাবক শনাক্ত করতে পারেনি। রাত ১২টার দিকে উপজেলা ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আনুমানিক তিন দিন বয়সের নবজাতক শিশুটিকে ফেনীর স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সহায় এর জিম্মায় ফেনীর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।

সোনাগাজী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক ডাক্তার নুরুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শিশুটি হাসপাতালে জম্মগ্রহণ করেনি। অন্য কোথাও জম্মের পর শিশুকে তার মা কৌশলে হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *