মসজিদে মিলল ইমামের গলাকাটা লাশ

একুশের বার্তা ডেস্ক- নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় একটি মসজিদ থেকে দিদারুল ইসলাম (২৬) নামে এক ইমামের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় হত্যাকাণ্ডের আলামত হিসেবে দুটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার মল্লিকপাড়া এলাকার নারায়নদিয়া বাইতুল জালাল জামে মসজিদের ভেতর থেকে ওই ইমামের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত দিদারুল ইসলাম খুলনার তেরখাদা থানার রাজাপুর গ্রামের আফতাব ফরাজীর ছেলে।

ঈদের ছুটিতে দিদারুল ইসলাম বাড়ি গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। গত মঙ্গলবার মসজিদে কাজে যোগ দেওয়ার একদিন পরেই এ ঘটনা ঘটল।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ জুলাই পাশ্ববর্তী ছোট কাজীরগাঁও গ্রামের মসজিদের ইমাম হাদিসুর রহমানের পরিচয়ে দিদারুল ইসলাম নারায়নদিয়া বায়তুল জালাল জামে মসজিদে আসেন। ঈদের পরদিন মঙ্গলবার প্রশিক্ষণের কথা বলে মসজিদ কমিটির কাজ থেকে ছুটি নেন ইমাম। পরে ছুটি শেষ করে গত শুক্রবার মসজিদে জুমার নামাজ পড়ান। ওইদিন জুমার শেষে আবারও প্রশিক্ষণের কথা বলে ছুটি নিয়ে চলে যান দিদারুল।

এর পর মঙ্গলবার মসজিদে এসে আসরের নামাজ পড়ান ওই ইমাম। বুধবার দিবাগত রাতে এশার নামাজ পড়ানোর পর মুসুল্লিরা চলে গেলে মসজিদের ভেতরে হুজুর কক্ষে অবস্থান নেন তিনি।

আজ ভোরে ফজর নামাজের ওয়াক্ত শুরু হলেও আজান শুনতে না পেয়ে মুসলিরা মসজিদের হুজুরকে ডাকাডাকি করেন। পরে হুজুর কক্ষের বাহিরে তালাবদ্ধ অবস্থায় দরজার ফাঁক দিয়ে ভেতরে হুজুরের গলাকাটা লাশ দেখতে পান তারা। খবর পেয়ে সোনারগাঁ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

মসজিদ পরিচালনা পরিষদের সহ-সভাপতি আলী আকবর জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে ফজরের ওয়াক্ত শুরু হলেও মসজিদের আজান শুনতে না পেয়ে মুসুল্লিরা ইমাম সাহেবকে ডাকাডাকি করেন। পরে তার কক্ষের বাহিরে তালাবদ্ধ অবস্থায় বিছানার ওপর তার মাথা বিচ্ছিন্ন মরদেহ দেখতে পায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান মনির জানান, বুধবার রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা মসজিদে প্রবেশ করে ইমামকে গলা কেটে হত্যা করেছে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *